Shaaticup (শাটিকাপ) Web Series Review and Spoilers - IMDb


Shaaticup (শাটিকাপ) Web Series Review and Spoilers - IMDb





Shaaticup (শাটিকাপ) Web Series Review and Spoilers - IMDb


IMDb: 


Review: 

মোহাম্মদ তাওকীর ইসলাম পরিচালিত ওয়েব সিরিজ ‘শাটিকাপ’ এর প্রথম সিজন রিলিজ পেয়েছে গতকাল।ফুটপ্রিন্ট ফিল্ম প্রডাকশন প্রযোজিত এই নার্কোথ্রিলার জনরার সিরিজটি কনটেন্ট, নির্মান এবং অভিনয় দক্ষতা দিয়ে এককথায় আমাদের বিনোদন ইন্ডাস্ট্রির বেশকিছু প্রথা বা ধারণা ভেঙ্গেছে সুনিপুণভাবে। ব্যক্তিগত ভাবে আমার মনে হয়েছে যে, হলিউড বা বলিউডে এই ঘরানার কাজ আমরা দেখে কিছুটা আক্ষেপ করি যে আমাদের দেশে এমন কাজ কেনো হয়না সেই আক্ষেপ পুরোপুরি ঘুচাতে সক্ষম হয়েছে ‘শাটিকাপ’। 


চেনা গন্ডির বাইরে যেয়ে এক ব্যতিক্রমী গল্প এবং চিত্রনাট্যে একজন বা দুইজন নয় মোট ১৩৭ জন শিল্পীর অসাধারণ স্ক্রিন প্রেজেন্স ‘শাটিকাপ’ কে নিয়ে গেছে এক অন্য উচ্চতায়। ট্রেলার, পোষ্টার এবং গান দিয়ে রিলিজের আগেই হইচই ফেলে এই আঞ্চলিক সিরিজটি নিয়ে আগ্রহ বেড়ে যায় কয়েকগুন। কারন এই প্রথম আমাদের দেশে একটি ওয়েব সিরিজ যার গল্প সীমান্তবর্তী এলাকার, তাই চিত্রনাট্য ও গল্প বিশ্বাসযোগ্য করার জন্য ব্যবহার করা হয়েছে স্থানীয় ভাষা, প্রতিটা দৃশ্যর শ্যুট হয়েছে রাজশাহীতে এমনকি প্রতিটি অভিনয় শিল্পীও রাজশাহীর। এমনটা এর আগে আমাদের দেশীয় কোনো সিরিজে এর আগে দেখা যায়নি। 


‘শাটিকাপ’ শব্দটা স্থানীয় ভাষায় ব্যবহার করা হলেও এর মানে হচ্ছে ‘ঘাপটি মেরে থাকা’। প্রতিটা ডিপার্টমেন্টের প্রতিটি শিল্পী এবং কলাকুশলীদের শ্রম এবং মেধার সমন্বয়ে একটি অঞ্চলের ভয়াবহ এক গল্প তুলে ধরা হয়েছে নান্দনিকভাবে। তবে সেটা মোটেও ঘাপটি মেরে ছিলো না। কারন পুরো সিরিজ দেখার পর মনে হবে এটা অনেক বেশিভাবে প্রতিটা ফ্রেম এবং দৃশ্যে আওয়াজ তুলেই জানান দিয়েছে যে, গল্পকার বা নির্মাতাদের চিরচেনা স্রোতের বিপরীতে যেয়ে ঢাকা ছাড়াও যে বাংলাদেশকে দেখানো যায় বা রাজধানীর  বাইরেও টানটান সাসপেন্স ভরা কনটেন্ট এবং সেই গল্পে অভিনয় করার মতো একঝাঁক নতুন কিন্তু দক্ষ ও পরিশ্রমী অভিনেতা-অভিনেত্রী আছেন। দরকার চেনা ফর্মুলার বাইরে যেয়ে নতুনভাবে বিনোদন মাধ্যম নিয়ে আমাদের চিন্তা বদলানোর। 


সীমান্তবর্তী এলাকায় মাদক চোরাচালান, অস্ত্র ব্যবসা এবং এর সাথে জড়িত ছোট-বড় নানা গ্রুপ এমনকি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও প্রশাসনের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের নিয়ে সাসপেন্স, ড্রামা, থ্রিলের সমন্বয়ে ‘শাটিকাপ’ এমন এক জমজমাট ফিকশন উপস্থাপন করেছে যা এককথায় অসাধারণ। গল্প, চিত্রনাট্য, সংলাপ, ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোর সাথে আহসাবুল ইয়ামিন রিয়াদ, আহসাবুল ইয়ামিন, নাজমুস সাকিব, ওমর মাসুম, অমিত রুদ্র, ওয়াসিকুল ইসলাম,শাহ আসিফ আহমেদ, সাজিয়া খানমরা এককথায় আমাদের ধরে রেখেছেন পুরোটা সময় তাদের অসাধারণ অভিনয় দক্ষতা দিয়ে। নির্মানের মুন্সিয়ানা, কারিগরি ডিপার্টমেন্টে অসাধারণ কাজ, সিনেমাটোগ্রাফি, ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোর সব মিলিয়ে ‘শাটিকাপ’ অনবদ্য।

 তবে স্বাভাবিকভাবেই পছন্দ-অপছন্দ ভেদে আট এপিসোডের এই সিরিজের ক্লাইম্যাক্স হয়তো সবার একইভাবে ভালো লাগবেনা এবং কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র ডেভেলপমেন্টে আর একটু মনযোগী হওয়াই যেতো।এর বাইরে ‘শাটিকাপ’ সোজা ভাষায় বলতে গেলে একটি ধামাকা সিরিজ নিঃসন্দেহে।
তাই সময় থাকলে দেশীয় ওটিটি প্ল্যাটফর্ম ‘চরকি’তে দেখে নিতে পারেন এই জমজমাট নতুন ঘরানার ওয়েব সিরিজটি।





পুরোপুরি আঞ্চলিক ভাষায় অসাধারণ সিনেমাটোগ্রাফি, সমসাময়িক বাস্তবতার সাথে মিলে যাওয়া কনটেন্ট, মনোমুগ্ধকর ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোর এবং নবীন কিন্তু প্রতিশ্রুতিশীল অভিনয় শিল্পীদের নিয়ে এক মিনিট তেইশ সেকেন্ডের ট্রেলারে রীতিমতো শ্বাসরুদ্ধকর এক ফিকশন ‘শাটিকাপ’ এর আভাস দিলেন নির্মাতা তাওকীর ইসলাম। 


তারকা তো দূরের কথা কোনো পরিচিত মুখেরও দেখা মিলে নাই এই ট্রেলারে। তবে যার বা যেটির দেখা মিলেছে সেটা চমকে দেবার মতোই। আমাদের দেশে সাধারনত সমসাময়িক ইস্যু সেটি সমাজ বা জীবনযাত্রায় কতোটা প্রভাব ফেলে সেসব নিয়ে তেমন ভাবে কোন কাজ করা হয়না। যেমন মাদকদ্রব্য চোরাচালান দীর্ঘ সময় ধরেই আমাদের দেশের একটি কঠিন এবং ভয়াবহ ব্যাধি বলে জানা থাকলেও এই ইস্যু নিয়ে তেমনভাবে কাজ হয়নি। হলিউড, মেক্সিকো বা আফ্রিকান সিনেমা বা ফিকশনে তো বটেই পাশের দেশ ভারতেও এই ইস্যু নিয়ে অনেকগুলো প্রশংসনীয় কাজ দেখা গেছে। এবার এই ধারায় নাম লেখাতে যাচ্ছে দেশীয় ওটিটি প্ল্যাটফর্ম ‘চরকি’র বছরের প্রথম ওয়েব সিরিজ ‘শাটিকাপ’ এর মধ্য দিয়ে।

 
ট্রেলারে বেশ ভালোভাবেই বোঝা গেছে আমাদের সীমান্তবর্তী কিছু জেলা দিয়ে মাদকদ্রব্য চোরাচালান এবং এর সাথে জড়িত ব্যক্তিদের জীবন, রাজনৈতিক পতিপত্তি, ক্ষমতার উত্থান-পতন এবং এর সাথে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর নানা কার্যক্রম বেশ ভালোভাবেই তুলে ধরা হয়েছে। জান নিয়ে দৌড় ঝাঁপ, সবখানে কাপ ঝাঁপ, মারতে হবে শাটিকাপ!


এই ট্যাগ লাইনেই 'শাটিকাপ' ওয়েব সিরিজের ট্রেলার রিলিজ দেয়া হলো। ‘শাটিকাপ' নার্কোথ্রিলার ঘরানার ফিকশন হবে তা বলা যায় ট্রেলার দেখেই। তবে আমাদের দেশীয় একটি সিরিজে রাতের অন্ধকারে মাদকের মতো ভয়াবহ নেশাদ্রব্যর আদান-প্রদান, এর সাথে জড়িত বিভিন্ন পক্ষ এবং পুলিশের সাথে এই মাদক ব্যবসায়ীদের চোর পুলিশের খেলা উপভোগ্য হবে বলেই মনে হচ্ছে। 


ট্রেলারের শুরুতেই অন্য দলের কাছে আটকা পড়া এক যুবকের অসহায়ত্ব এবং বেঁচে থাকার আকুতি মূহুর্তেই আমাদের অন্য এক জগতে নিয়ে যায়। প্রায় দেড় মিনিট দৈর্ঘ্যের ট্রেলারে প্রতিটি মূহুর্তেই সাসপেন্স, থ্রিল এবং অ্যাকশনের কোনো কমতি ছিলোনা। ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করা শিল্পীদের আঞ্চলিক ভাষায় সংলাপ, মানানসই লুক এবং সিনেমাটোগ্রাফি তো বটেই আরেকটি বিষয় যা লক্ষ্য করার মতো ছিলো সেটা হলো চেজিং দৃশ্যগুলোতে নান্দনিক ক্যামেরার কাজ। 


যতোটুকু জানা গেছে, এই ওয়েব সিরিজের তরুণ নির্মাতা তাওকীর ইসলাম সহ সিরিজের প্রায় সকল শিল্পী, কলাকুশলী সবাই উত্তরবঙ্গের রাজশাহীর মানুষ। তাই স্বাভাবিকভাবেই নতুন কিন্তু দক্ষ এই শিল্পীদের নিয়ে এমন একটি কনটেন্ট নির্মান আলাদা একটা আগ্রহ তৈরী করতে সক্ষম হয়েছে।


‘শাটিকাপ’ তিনটি সিজনে সম্পূর্ণ করা হবে বলে জানা গেছে নির্মাতা সুত্রে তবে প্রথম সিজনে আটটি এপিসোড কতোটা সফল ভাবে সেলুলয়েডে সীমান্তবর্তী এলাকায় মাদক এবং অস্ত্রের ব্যবসা এবং এর সাথে জড়িত ব্যক্তিদের টানাপোড়েন উপস্থাপিত হয় সেটার উপর নির্ভর করবে। ভুল না করলে ‘শাটিকাপ’ এর অর্থ হলো ‘ঘাপটি মেরে বসে থাকা’।



Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.